অপরাধ ও অপরাধী চিহ্নিতকরণ নেটওয়ার্কের আরও এক বছর বাড়িয়ে দেওয়ার প্রস্তাবে সম্মতি
নিজস্ব প্রতিনিধিঃ, 06/04/2017, নয়াদিল্লি

অপরাধী সহ অপরাধ চিহ্নিতকরণ এবং তার গতিবিধির ওপর নজর রাখার জন্য যে কর্মসূচিটি (সি সি টি এন এস) রূপায়িত হচ্ছে তা রূপায়ণের মেয়াদ ৩১ মার্চ, ২০১৭’র পর আরও এক বছর বাড়িয়ে দেওয়ার প্রস্তাব বুধবার অনুমোদিত হ’ল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত কমিটির বৈঠকে। প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পক্ষ থেকে পেশ করা এই প্রস্তাবে সম্মতি জানানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের ফলে এই কর্মসূচি রূপায়ণের যে সমস্ত কাজ এখনও বাকি রয়েছে, তার লক্ষ্যমাত্রা পূরণও সম্ভব হবে বলে আশা করা হচ্ছে। কর্মসূচিটি চালিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে এর আগে দেওয়া অনুমোদন অনুযায়ী কাজ চলতে থাকবে আগামী ২০২২ সাল পর্যন্ত। এই কর্মসূচি রূপায়ণে মোট অর্থ বরাদ্দ করা হয় ২ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে ২০১৬-১৭ অর্থ বছর পর্যন্ত ব্যয় হয়েছে ১,৫৫০ কোটি টাকা।

এই কর্মসূচি রূপায়ণের কয়েকটি উল্লেখযোগ্য দিক হ’ল – কেন্দ্র ও রাজ্য পর্যায়ে নাগরিকদের জন্য যে সমস্ত পোর্টাল খোলা হয়েছে, তাতে অনলাইন পদ্ধতিতে অভিযোগ দায়ের করা এবং পুলিশি তৎপরতা সম্পর্কে একদিকে যেমন স্বচ্ছতা বজায় থাকবে, অন্যদিকে তেমনই অপরাধ ও অপরাধীদের সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্যের হদিশ পাবেন দেশের তদন্তকারী আধিকারিকরা। এছাড়াও, বিভিন্ন আঞ্চলিক ভাষায় অনুসন্ধান সম্পর্কিত সুযোগ-সুবিধার প্রসার ঘটানো হবে পুলিশ কর্মী ও আধিকারিকদের জন্য। সারা দেশের থানাগুলির মধ্যে গড়ে উঠবে এক নির্ভরযোগ্য নেটওয়ার্ক। জাতীয় পর্যায়ে অপরাধ ও অপরাধীদের সম্পর্কে বিভিন্ন বিশ্লেষণী তথ্য প্রকাশেরও সুযোগ থাকবে এই কর্মসূচির আওতায়।