কয়লা খনির নিলামি
নিজস্ব প্রতিনিধিঃ, 28/03/2017, নয়াদিল্লি

কয়লা খনি (বিশেষ বিধান) আইন, ২০১৫ এবং এর পরবর্তিতে তৈরি হওয়া নিয়ম অনুযায়ী নিলামি/বন্টনের পদ্ধতিতে এখন পর্যন্ত ৮২টি কয়লা খনি বন্টন করা হয়েছে | এর মধ্যে ৩১টি খনিকে ই-নিলামির মাধ্যমে এবং বাকিগুলোকে বন্টনের মাধ্যমে বরাদ্দ করা হয়েছে | সোমবার রাজ্যসভায় এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে একথা জানিয়েছেন বিদ্যুত, কয়লা এবং নতুন ও পুনর্নবীকরণ বিদ্যুত মন্ত্রকের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী শ্রী পীযুষ গোয়েল | মন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, এই আইন অনুসারে গত এক বছরে কোনো কয়লা খনি/ব্লক-এর নিলামি হয়নি | তবে ছয়টি কয়লা খনিকে এই আইন অনুসারেই রাজ্য সরকারের অধীনস্ত সংস্থাকে কয়লা বিক্রির জন্য বন্টনের মাধ্যমে বরাদ্দ করা হয়েছে |

মন্ত্রী আরও বলেন, সরকার কয়লা খনির নিলামি/বন্টনের ক্ষেত্রে রাজস্ব আদায়ের কোনো লক্ষ্যমাত্র স্থির করেনি | চুক্তি অনুসারে দক্ষতা পরিমাপকের সঙ্গে মিলিয়ে কয়লা খনির উন্নয়নের জন্য একটি পরিচালনা পদ্ধতি রয়েছে | মনোনীত কর্তৃপক্ষ নিয়মিতভাবে কয়লা খনিগুলোর অগ্রগতি পর্যালোচনা করে থাকে | বরাদ্দ পাওয়া কোম্পানি যদি উন্নয়নের ক্ষেত্রে এই পরিমাপকের সুনির্দিষ্ট শর্তাবলী পূরণে ব্যর্থ হয়, তাহলে চুক্তি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় | মন্ত্রী আরও বলেন, জমে থাকা সমস্যার সমাধানের জন্য কয়লা মন্ত্রকে একটি অনলাইন কোল প্রজেক্ট মনিটরিং পোর্টাল-এর সূচনা করা হয়েছে |